Advertisement

কিন্ডারগার্টেন ব্যাবস্থা ধ্বংসের পথে- সরকারের দৃষ্টি নেই ।

Brahmanbariabarta

এই আর্টিকেল টি ১১০।

মুন্সি সাব্বির আহাম্মদ : গত প্রায় ২ বছর ধরে করোনায়  বন্ধ থাকা প্রাথমিক শিক্ষায় গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী দেশের প্রায়  ৬০ হাজার কিন্ডারগার্টেন এখন অস্তিত সংকটের পথে।প্রাথমিক শিক্ষার মানউন্নয়নের স্বপ্ন নিয়ে গড়ে উ্ঠা এসকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায়  ১০( দশ হাজার ) ইতিমধ্যেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না খোলা ও সরকারী কোন ধরনের সহযোগিতা না পাওয়ায় বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোর অধিকাংশই বন্ধের সম্ভাবনা রয়েছে।যেসব প্রতিষ্ঠান টিকে আছে সেগুলোর মালিকপক্ষ অনেকেই প্রতিষ্ঠান ধরে রাখতে গিয়ে আর্থিকভাবে হুমকির মুখে রয়েছে।কিন্ডারগার্টেনে চাকুরীরত প্রায় ৪ লক্ষ শিক্ষক দীর্ঘ সময় ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। জাতি গড়ার কারিগর এই শিক্ষকরা এই পর্যন্ত কোন ধরনের সরকারী সহযোগিতা না পাওয়ায় ক্ষোভ বিরাজ করছে এসব শিক্ষাঙ্গনে। এসকল কিন্ডারগার্টেনগুলো না থাকলে দেশে আরো ২০ (বিশ হাজার)  প্রাথমিক বিদ্যালয় করার প্রয়োজন পড়তো। এছাড়া বিগত বছর   গুলোতে দেখা গিয়েছে দেশের  সকল কিন্ডারগার্টেনগুলো  প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শতকরা ৮০ ভাগের ও বেশি জি.পি.এ  ৫ পেয়েছে। যেখানে সরকারী এত প্রশিক্ষণ , বেতন  ও নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়েও মাত্র ২০ ভাগ ভাল ফলাফল করতে তারা ব্যার্থ । সেখানে কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের কঠোর পরিশ্রমের ফলে তারা সার্থক। একটি দেশের শিক্ষার মূল ভিত্তি প্রাথমিক শিক্ষায় সহযোগিতাকারী এবং প্রায় ২০ ( বিশ হাজার ) প্রাথমিক  বিদ্যালয়ের চাহিদা পূরণে সহায়ক এই কিন্ডারগার্টেনগুলো আজ অতিমারী করোনায় যখন বিপর্যস্ত তখন সরকারের এই না দেখা মনোভাব বেসরকারী শিক্ষা উদ্যোক্তাদের ভাবিয়ে তুলেছে।যা আগামীতে এই সেক্টরের প্রতি তাদের মনোবল হারিয়ে ফেলবে। সকল বেসরকারী সেক্টর বিভিন্ন সময় প্রণোদনা পেলেও এখন পর্যন্ত জাতি গড়ার কারিগর ও কারখানা এই শিক্ষক ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো  কোন প্রকার  সহায়তা পায়নি। বর্তমান ২০২১-২২ অর্থবছরের সরকারের বাজেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৬,০৩,৬৮১ ( ছয় লক্ষ তিন হাজার ছয়শত একাশি কোটি টাকা ) । বিশাল এই বাজেটের স্লোগান- “জীবন-জীবিকায় প্রাধান্য দিয়ে সুদূঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ” দেশের ইতিহাসে এত বড় বাজেটেও এসকল বেসরকারী প্রতিষ্ঠান গুলোর জন্য কোন বরাদ্ধ দেওয়া হয়নি। তাহলে প্রশ্ন বাজেটের এই স্লোগানে কাদের জীবন- জীবিকার প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। যে দেশের শিক্ষকরা আজ কর্মহীন হয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছে ! আশা করছি উন্নয়ণ ও জনবান্ধব এই সরকার অতিশিগ্রই এই দিকটিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দৃষ্টি দিবে।

জীবন চলার পথে প্রায়ই আমাদের সামনে ঘটে যায় বিভিন্ন ধরণের অনাকাংক্ষিত ঘটনা, আমরা চাইলে প্রযুক্তির কল্যানে খুব সহজেই ঘটনাগুলোকে ক্যামেরা বন্দি বা ভিডিও রেকর্ড করে ফেলতে পারি এবং খুব দ্রুত অন্যদের কাছে সেই ঘটনার খবর ছড়িয়ে দিতে পারি।

ভাইরাল২৪.কম এমন একটি ওপেন নিইজ প্ল্যাটফর্ম, যেখানে আপনি নিজেই কোন খবর বা ভিডিও পোস্ট করতে পারেন, আপনার সেই খবর বা ভিডিওটি হাজার হাজার মানুষ দেখবে, আপনার মাধ্যমে সবাই সেই ঘটনা সম্পর্কে জানতে পারবে।

আমাদেরকে লেখা বা ভিডিও পাঠাতে "আপনিও হোন ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক" পেইজ থেকে নিয়ম-কানুনগুলো ভালভাবে জেনে নিন।

Advertisement

Sorry, no post hare.