Advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়া বনাম কোপা আমেরিকা !!! –

Brahmanbariabarta

এই আর্টিকেল টি ১৪৮।

 

বিশেষ প্রতিনিধি : আতিক হাসান বিন মুন্সি –  কোপা আমেরিকার ফাইনালে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফুটবল ছন্দ দেখার জন্য যখন বিশ্ব মুখিয়ে আছে, ঠিক তখন উল্টো চিত্র বিরাজ করছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। দুই দলের সমর্থকদের উন্মাদনা দমাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোতায়েন করা হয়েছে হাজারো পুলিশ।

ব্রাজিল – আর্জেন্টিনা ফাইনাল : শহরে পুলিশের মাইকিং, ১৫৬ টি টিম মোতায়েন করা হয়েছে।ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফুটবল ম্যাচ মানেই টানটান উত্তেজনা। ব্রাজিল না আর্জেন্টিনা, আর্জেন্টিনা না ব্রাজিল কোন দল সেরা তা নিয়ে বাংলাদেশি ভক্তদের উত্তেজনার পরিমাণটা যেন আরও বেশি। তবে এবার কেবল তর্ক-বিতর্ক নয়, উত্তেজনা গড়িয়েছে সংঘর্ষেও। এমনকি গত ৪ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রিয় দুই দল নিয়ে এ সংঘর্ষের খবর জায়গা করে নিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতেও।

 এই পরিস্থিতিতে চির-প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফাইনাল এ ম্যাচকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা এড়াতে জেলার প্রতিটি উপজেলায় মাইকিং হয়েছে। উপজেলা গুলোতে মোতায়েন করা হবে ১১৬টি বিট পুলিশের দল। এ ছাড়া  পুলিশের আরও ৪০টি বিশেষ টহল দলও মোতায়েন করা হবে।

এদিকে সদর মডেল থানার পুলিশ জেলা শহরের ভাদুঘর, কাউতলী, পুনিয়াউট বাসস্ট্যান্ড, পৈরতলা বাসস্ট্যান্ড, মধ্যপাড়া বাসস্ট্যান্ড, পীরবাড়ি-বিরাসার বাসস্ট্যান্ড, ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন, টিএরোড, পৌর মার্কেটের সামনে, সদর হাসপাতাল রোড, কুমারশীল মোড়, পাইকপাড়া, টেংকেরপাড় ও মেড্ডা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মাইকিং করেন এবং ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার খেলাকে কেন্দ্র করে কেউ কোন সহিংসতা জড়িত হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিবে বলে মাইকিং করা হয়।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম জানান, শহরের ভাদুঘর থেকে মেড্ডা পর্যন্ত মাইকিং করা হয়েছে।  সবাইকে সতর্কতা লক্ষ্যে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। উপজেলায় বিট পুলিশের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। খেলাকে কেন্দ্র করে যেন কোন ধরনের সহিংসতা না হয় সেজন্য  পুলিশের টহল অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের দামচাইল বাজারে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই দিন সকালে প্রথমে কথা-কাটাকাটির জেরে পরে বিকেলে প্রতিপক্ষের হামলায় এক ব্রাজিল সমর্থকের চাচা নওয়াব মিয়া (৬০) আহত হন।

ওই রাতে পাল্টা হামলায় আর্জেন্টিনার তিন সমর্থক জাকির মিয়া (৩২), সেলিম মিয়া (৪৫) ও সৈয়দাবুর রহমান (৩৫) আহত হন। তারা সবাই উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের আলাকপুর গ্রামের বাসিন্দা। একই সঙ্গে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বড় পর্দায় খেলা দেখাসহ সব ধরনের বিজয় মিছিল।

দুই দলের সমর্থকরা জানান, তারা সুন্দরভাবে খেলা উপভোগ করবেন। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয় এমন কোনও কাজ করবেন না।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন জানান, কোপা আমেরিকার ফাইনাল  খেলাকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একাধিক স্থানে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। তাই জেলা পুলিশ থেকে বাড়তি সতর্কতামূলক ব্যবস্থার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, খোলা জায়গায় বড় পর্দায়, কোনও ক্লাবে বা চায়ের দোকানে কোথাও খেলা দেখার আয়োজন করতে দেয়া হবে না। এ বিষয়ে আজ আমরা মাইকিং করা শুরু করেছি।

এক প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ শাহীন বলেন, ফাইনাল খেলার দিন ভোর ৫টা থেকে মাঠে থাকবে পুলিশের বিশেষ টিম।  পাশাপাশি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা আগাম বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। খেলা শেষ হওয়ার পর কোনও অবস্থাতেই মিছিল করা যাবে না। কেউ যদি পুলিশের নির্দেশনা অমান্য করে তাহলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ নিয়ে কাউকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না।

প্রায় ৩৩ লাখ লোকের এই জেলায় নয় উপজেলাসহ ১০০টি ইউনিয়নে ১৩৩১টি গ্রামে বিরাজ করছে ফুটবল উন্মাদনা। এদের অধিকাংশই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থক।

জীবন চলার পথে প্রায়ই আমাদের সামনে ঘটে যায় বিভিন্ন ধরণের অনাকাংক্ষিত ঘটনা, আমরা চাইলে প্রযুক্তির কল্যানে খুব সহজেই ঘটনাগুলোকে ক্যামেরা বন্দি বা ভিডিও রেকর্ড করে ফেলতে পারি এবং খুব দ্রুত অন্যদের কাছে সেই ঘটনার খবর ছড়িয়ে দিতে পারি।

ভাইরাল২৪.কম এমন একটি ওপেন নিইজ প্ল্যাটফর্ম, যেখানে আপনি নিজেই কোন খবর বা ভিডিও পোস্ট করতে পারেন, আপনার সেই খবর বা ভিডিওটি হাজার হাজার মানুষ দেখবে, আপনার মাধ্যমে সবাই সেই ঘটনা সম্পর্কে জানতে পারবে।

আমাদেরকে লেখা বা ভিডিও পাঠাতে "আপনিও হোন ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক" পেইজ থেকে নিয়ম-কানুনগুলো ভালভাবে জেনে নিন।

Advertisement

Sorry, no post hare.